বিশ্বমানের বিজ্ঞান গবেষণায় বঙ্গবন্ধু কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাফল্য

A daylong training workshop on “Accreditation of BSMRAU: Roles and Responsibilities of Faculties held at BSMRAU’’ was held today (30 July’19) at the Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman Agricultural University (BSMRAU), which was organized by Institutional Quality Assurance Cell (IQAC), BSMRAU. Vice-Chancellor of the University Prof. Dr. Md. Giashuddin Miah and Treasurer Prof. Tofayel Ahamed were present as Chief Guest and Special Guest, respectively, in the Inaugural Session. Director (IQAC) Prof. Dr. Md. Abiar Rahman presided over the program while Prof. Dr. Hasan Muhammad Abdullah, Assoc. Prof. Agroforestry & Environment of BSMRAU was present as resource person. Dr. S. M. Rafiquzzaman Additional Director (IQAC) gave welcome address at the training workshop. All Assistant professor and Lecturer of the university participated at the training workshop.

 

 

 

 

 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরকৃবি) একটি গবেষণাভিত্তিক বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয়। ১৯৮৫ সালে প্রথমে ইপসা এবং পরবর্তীকালে ১৯৯৮ সালে জাতির পিতার নামে প্রতিষ্ঠিত এ বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয়টি কৃষিতে মৌলিক ও প্রায়োগিক গবেষণায় অগ্রাধিকার প্রদান করে আসছে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার অর্থায়নে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ আধুনিক কৃষির নানা বিষয়ে অনেকগুলো গবেষণা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছেন। প্রতিষ্ঠানটি এমএস ও পিএইচডি ডিগ্রির পাশাপাশি ২০০৫ সাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি অনুষদ থেকে বিএস ডিগ্রি প্রদান করে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এ পর্যন্ত ৩১৯ জন পিএইচডি, ১৮১৭ জন এমএস এবং ১৩১৬ জন ছাত্রীছাত্রী বিএস ডিগ্রি অর্জন করেছে। প্রতি বছরই এ বিশ্ববিদ্যালয় হতে শতাধিক গবেষণা প্রবন্ধ আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতিসম্পন্ন উচ্চ ইমপ্যাক্ট ফ্যাক্টর বিশিষ্ট জার্নালে প্রকাশিত হচ্ছে, যা সম্প্রতি প্রকাশিত স্পেনভিত্তিক সিমাগো এবং যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা স্কোপাসের জরিপে ফুটে উঠেছে। সংস্থা দু’টির জরিপে দেখা যায় যে বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে বিজ্ঞান গবেষণায় র্যাংকিংয়ে বশেমুরকৃবি পঞ্চম এবং বৈশ্বিক র্যাংকিং তা ৭৩৭তম স্থানে রয়েছে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব অর্থায়নে ৫৯টি দীর্ঘমেয়াদি গবেষণা প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন রয়েছে। এছাড়াও, কৃষিতে মৌলিক ও ফলিত বিষয়ের ওপর দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার অর্থায়নে আরো প্রায় ৫০টি প্রকল্পের গবেষণা কাজ চলমান রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ কৃষি, মত্স্য, পশুপালন এবং পশুচিকিত্সা বিজ্ঞানে মৌলিক জ্ঞান সৃজনে উল্লেখযোগ্য সাফল্য রেখে চলেছেন। প্রায়োগিক গবেষণার মাধ্যমে ধানসহ অন্যান্য অর্থকরী ফসল, সবজি ও তৈল জাতীয় ফসলের ৩৫টির বেশি উচ্চফলনশীল জাত ও কৃষি প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি দেশের খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা অর্জনে বিশেষ অবদান রেখে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো: গিয়াসউদ্দিন মিয়া জানান, গুণগত মানসম্পন্ন কৃষি শিক্ষা এবং বিশ্বমানের যৌথ গবেষণার লক্ষ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি ইউরোপ, আমেরিকা, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, জার্মানি, জাপান, চীনসহ এশিয়ার আরো অনেকগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়টি উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে একটি আদর্শ বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে দেশে-বিদেশে সুনাম অর্জন করে চলেছে।

Please click here for (Scimago Journal & Country Rank) link
Scimago Institutions Rankings is a science evaluation resource to assess worldwide universities and research-focused institutions.